অনুসন্ধান - অন্বেষন - আবিষ্কার

বাঁশখালীতে লিয়াকত চেয়ারম্যানের বাড়ী থেকে বিপুল অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

0
.

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজের বহিস্কৃত ইউপি চেয়ারম্যান ও চট্টগ্রাম (দক্ষিণ জেলা) বিএনপি আহবায়ক কমিটির সদস্য গ্রেপ্তারকৃত লিয়াকত আলীর বাড়ী থেকে পুলিশ ১০ অস্ত্রসহ ৭২ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে জেলা পুলিশ ও বাঁশখালী থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) রাতভর গন্ডামারা ইউপির ১ নম্বর ওয়ার্ড খাস পাড়ার তার নিজ বসতঘরে ব্যাপক তল্লাশি চালিয়ে এসব অস্ত্র উদ্বার করেছে বলে দাবী করেন জেলা পুলিশ।

.

পুলিশ জানায় উদ্বার করা অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে-২টি বিদেশী পিস্তল, ৫টি দেশীয় তৈরি এলজি, ২টি কাটা একনলা বন্দুক, ১টি দেশীয় তৈরি একনলা বন্দুক, বিভিন্ন আগ্নেয়াস্ত্রের ৭২ (বাহাত্তর) রাউন্ড গুলি, ২৬টি কাতুর্জ, ৫টি চাইনিজ কুড়াল, ১টি কিরিচ, ৬টি কাঠেরবাটযুক্ত ধারালো রাম দা এবং ৪০টি বিভিন্ন সাইজের গাইট্টা (লাঠি) উদ্ধার করা হয়।

এর আগে গত বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে ঢাকা ফকিরাপুল মতিঝিল এলাকার একটি আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে বিএনপি নেতা লিয়াকতকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

পুলিশ জানায় তার বিরুদ্ধে খুন, চাঁদাবাজি, পুলিশের উপর হামলা, দস্যুতা, ভয়ভীতি, রাষ্ট্রবিরোধী কর্মকাণ্ডসহ নানা অপরাধে ২১টিরও বেশি মামলা তদন্তাধীন রয়েছে।এদিকে

আজ শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারী) দুপুর গণমাধ্যমকে
বাঁশখালীর গন্ডামারা বহিস্কৃত ইউপি চেয়ারম্যান লিয়াকতের বাড়ী থেকে বিভিন্স আগ্নেয়াস্ত্র উদ্বারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন

বাঁশখালী থানার হলরুমে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (আনোয়ারা সার্কেল) সোহানুর রহমান সোহাগ।

এদিকে আজ বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তোফায়েল আহমেদ জানান, লিয়াকতকে গ্নেপ্তারের পর তার দেয়া তথ্যের ভিক্তিতে তার গ্রামের বাড়ী থেকে বিপুল আগ্নেযাস্ত্র উদ্বার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় অস্ত্র, চাঁদাবাজি, পুলিশ আক্রান্ত, বিস্ফোরক, বিশেষ ক্ষমতা আইন, ১৯৭২ সালের অনুচ্ছেদ- ৭৩(২খ) গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ধারাসহ সর্বমোট ২১টি মামলা তদন্তাধীন ও বিচারাধীন রয়েছে বলে জানান।